1. admin@jamunarbarta.com : যমুনার বার্তা : যমুনার বার্তা
  2. shohel.jugantor@gmail.com : যমুনার বার্তা : যমুনার বার্তা
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন

প্রবাসীদের মধ্যে ৯২৫ কোটি টাকার ঋণ বিতরণ

  • প্রকাশ বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি, ২০২২
  • ১৯ জন পঠিত

২০১৯-২০ অর্থবছরে অভিবাসীদের এবং প্রত্যাবর্তনকারীদের পুনর্বাসন বাবদ ৫০০ কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে। আর গত বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে ৪২৫ কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে ২১ হাজার ৬০০ জনের মধ্যে। সর্বমোট ঋণের ৯২৫ কোটি টাকার মধ্যে এখন পর্যন্ত ৫১৫ কোটি টাকা আদায় করা গেছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জাহিদুল হক।

সম্প্রতি সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১৫তম বৈঠকের কার্য বিবরণী থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

এর আগে কমিটির সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক হতে কোন কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে কীভাবে ও কোন ক্যাটাগরিতে ঋণ দেওয়া হয়, যেকোনো ব্রাঞ্চ থেকে টাকা তোলা ও পাঠানোসহ ঋণের অর্থ ঠিকমতো পুনরুদ্ধার হচ্ছে কি না এবং প্রসেসিং ফি’র হার ইত্যাদি বিষয়ে জানতে চান। এর জবাবে ব্যবস্থাপনা পরিচালক এসব তথ্য জানান।

জাহিদুল হক জানান, অভিবাসীরা ফিরে আসার পর তাদের পুনর্বাসন এবং সাধারণ জনগণের জন্য প্রথমে তাদের ঋণের প্রকল্প প্রতিষ্ঠানের প্রকৃতি, আকার ও সম্ভাব্য সুদ এবং ঋণ পরিশোধ ক্ষমতা প্রভৃতি বিবেচনায় নিয়ে ঋণ প্রদান ও পরিশোধের মেয়াদ নির্ধারণ করা হয়। কিস্তিসমূহ ইএমআই (সমহারে মাসিক কিস্তি) পদ্ধতিতে চার্জ করা হচ্ছে। ঋণের প্রসেসিং ফি ৩ শতাংশ হতে কমিয়ে দশমিক ৫০ শতাংশ করা হয়েছে। দেশে ৮৯টি ব্রাঞ্চের অনুমোদন নেওয়া হয়েছে যা ২০২২ নালের মধ্যে ১০০ তে উন্নিত করা হবে। বিশ্বজুড়ে ১৮টি একচেঞ্জ হাউসের সাথে নিজস্ব এজেন্সি ব্যবস্থা রয়েছে। ফলে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে দেশের ব্রাঞ্চসমুহে টাকা পাঠাতে পারবে।

তিনি জানান, সব ঋণ (কর্মচারী ঋণ ব্যতীত) তিন লাখ টাকা পর্যন্ত জামানতবিহীন করা হয়েছে। ৩ থেকে ৫ লাখ পর্যন্ত স্বল্প জামানত এবং ৫ লাখ টাকার উপরে জামানতসহ ঋণ প্রদান করা হচ্ছে। পুনর্বাসন ঋণের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ঋণসীমা ৮ লাখ টাকা হতে ৫০ লাখ নির্ধারণ করা হয়েছে এবং বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ঋণসীমা ১০ লাখ টাকা হতে ৫০ লাখ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে, যার মেয়াদ সর্বোচ্চ ১০ বছর করা হয়েছে।

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, ২০২০ সালে এ ব্যাংকে অপারেটিং মুনাফা হয়েছে ৪৭ কোটি টাকা, নিট মুনাফা হয়েছে ১৪ কোটি টাকা। ব্যাংকের Data Center and Data Recovery Services স্থাপনের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ফিরে আসা নারী উদ্যেক্তাদের জন্য গ্রাম এলাকায় আত্মকর্মসংস্থানের জন্য ৪ শতাংশ হার সুদে দুটি ঋণ স্কিম কার্যক্রম চালু হতে যাচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো বার্তা দেখুন
©২০১৫ ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized By BreakingNews