1. admin@jamunarbarta.com : যমুনার বার্তা : যমুনার বার্তা
  2. shohel.jugantor@gmail.com : যমুনার বার্তা : যমুনার বার্তা
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০১:২১ পূর্বাহ্ন

বাণিজ্যমেলার জন্য প্রস্তুত ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টার

  • প্রকাশ বৃহস্পতিবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৩২ জন পঠিত

করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় ১ জানুয়ারি বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে ২৬তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা অনুষ্ঠিত হবে। এই বিশাল আয়োজনের প্রস্তুতি নেয়ার জন্য ইপিবিকে চিঠি দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এরই মধ্যে ১ জানুয়ারি মেলা শুরুর বিষয়ে অনুমতি চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করা হলে তিনি অনুমতি দিয়েছেন।

মেলায় সর্বসাধারণের চলাচলের সুবিধার্থে কুড়িল ফ্লইওভার থেকে মেলা প্রাঙ্গণ পর্যন্ত বিআরসিটিসির বাস চলাচল করবে। এ ছাড়াও ডিসেম্বরের মধ্যেই পূর্বাচলের রাস্তা মেরামত করে তা চলাচলের উপযোগী করা হবে। সম্প্রতি পূর্বাচলের রাস্তার কাজের দায়িত্বে থাকা প্রকল্প পরিচালক বাণিজ্য সচিবের সাথে বৈঠক করেছেন। সভায় রাজউকের চেয়ারম্যান ও ঊর্ধ্বতন ইঞ্জিনিয়ার ও ইপিবির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় জানানো হয়, ডিসেম্বরের মধ্যে পূর্বাচলের ১০ কিলোমিটার রাস্তা চলাচলের জন্য উপযোগী থাকবে। দুই লেন করে দুইপাশে চার লেনে গাড়ি চলবে। এখনই অনেক জায়গায় প্রধান সড়ক দিয়ে চলাচল করা যাচ্ছে। ইপিবি সূত্র জানায়, মাসব্যাপী বাণিজ্যমেলায় দর্শনার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে বিআরটিসির ৩০টি বাস কুড়িল ফ্লাইওভারের নিচ থেকে বাণিজ্যমেলার কেন্দ্র পর্যন্ত চলাচলের জন্য অনুরোধ করে বিআরটিসিকে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। দর্শনার্থীরা মেলায় যাওয়ার জন্য ন্যূনতম ভাড়ার মাধ্যমেই এসব বাসে চলাচল করতে পারবেন।

এবারের বাণিজ্যমেলায় প্রায় ৩০০ স্টল থাকবে বলে জানা গেছে। ভেতরে এবং বাইরে মিলে এসব স্টল থাকবে। তবে মেলাকেন্দ্রের ভেতরে থাকা জায়গার মধ্যে বেশির ভাগই মানুষের চলাচলের জন্য ফাঁকা রাখা হবে। আর কেন্দ্রের বাইরে ডানপাশে স্টল বসলেও, আরেকদিক সৌন্দের্যের জন্য ফাঁকা রাখা হবে। মেলার ডিজাইন সেভাবেই করা হয়েছে। এক্সিবিশন সেন্টারের প্রকল্প পরিচালক রেজাউল করিম বলেন, আমাদের কাজ শেষ করেছি। মেলা প্রাঙ্গণ পুরোপুরি প্রস্তুত আছে। ইপিবি মেলার লেআউটসহ অন্যান্য কাজ শেষ করেছে। যথাসময়েই মেলা হবে।

নতুন স্থানে অনুষ্ঠিতব্য বাণিজ্যমেলায় আগতদের গাড়ি রাখার জন্য বৃহৎ পরিসরে পার্কিং সুবিধা রয়েছে। মেলার শৃঙ্খলার স্বার্থে গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য কেন্দ্রের পাশেই রাজউকের পানির প্ল্যান্ট ভাড়া নেয়া হয়েছে। সেখানেই এক হাজার গাড়ি পার্কিং হবে। দোতলা পার্কিং বিল্ডিংয়ের মোট পার্কিং স্পেস সাত হাজার ৯১২ বর্গমিটার, যেখানে ৫০০টি গাড়ি রাখা যাবে আর এক্সিবিশন বিল্ডিংয়ের সামনের খোলা জায়গায় আরো এক হাজার গাড়ি পার্কিং করার সুযোগ রয়েছে।

বাণিজ্যমেলা প্রসঙ্গে ইপিবির সচিব এবং মেলার পরিচালক মো: ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী বলেন, বিশ্বব্যাপী মেলা যে সিস্টেমে হয়, সেই একই সিস্টেমে এবারের বাণিজমেলা হবে। মেলা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনায় কিছুটা চ্যালেঞ্জ তো থাকবেই। কারণ নতুন জায়গায় নিচে সার্ভিস লাইন আছে। খুঁড়তে গিয়ে যদি সার্ভিস লাইন নষ্ট করেন তাহলে পুরো সেন্টার অচল হয়ে যাবে। এসব বিষয় মাথায় রেখে যতটুকু না করলেই না, ততটুকুই আমরা করব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো বার্তা দেখুন
©২০১৫ ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized By BreakingNews