1. admin@jamunarbarta.com : যমুনার বার্তা : যমুনার বার্তা
  2. shohel.jugantor@gmail.com : যমুনার বার্তা : যমুনার বার্তা
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন

অভিযান লঞ্চে অগ্নিকাণ্ড: সব তদন্ত প্রতিবেদন চেয়েছেন হাইকোর্ট

  • প্রকাশ বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৩১ জন পঠিত

এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির সব প্রতিবেদন আগামী ৩০ দিনের মধ্যে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি এই ঘটনায় আহত-নিহতদের তালিকা আদালতে দিতে বলা হয়েছে। আর ওই লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে আহত কেউ চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা চাইলে নিজ নিজ জেলা প্রশাসককে তা বিবেচনা করতে বলেছেন হাইকোর্ট।

ঢাকা থেকে বরগুনাগামী এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর আলাদা রিটের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।এ ছাড়া লঞ্চ-জাহাজসহ দেশের সব অভ্যন্তরীণ নৌযানে ফিটনেস, সনদসহ আইন অনুযায়ী সবকিছু আছে কিনা, সে বিষয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন ৯০ দিনের মধ্যে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।মঙ্গলবার আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার অনিক আর হক ও অ্যাডভোকেট ইউনুস আলী আকন্দ। তাদের সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী সৌমিত্র সরদার, আনিসুর রহমান রায়হান, মো. ইসা, আনিছুর রহমান ও মহিউদ্দিন পলাশ।শুনানিকালে লঞ্চে আগুন লাগার ঘটনায় কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা প্রশ্নে আদালত রুল জারি করতে চাইলে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার বলেন, লঞ্চ দুর্ঘটনায় সরকারের তো কোনো নিষ্ক্রিয়তা নেই।

নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে লঞ্চের মালিক। এ সময় আদালত প্রশ্ন রেখে বলেন, আপনি বলছেন নিষ্ক্রিয়তা নেই। আপনাদের (বিআইডব্লিউটিএ) কর্মকর্তারা যাচাই-বাছাই না করেই লঞ্চের ক্লিয়ারেন্স দিয়েছেন। এ ক্ষেত্রে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষের কি কোনো দায়িত্ব নেই? তারা কি দায় এড়াতে পারে? মর্মান্তিক এ ঘটনায় অসন্তোষ প্রকাশ করে আদালত বলেন, অভিযান-১০ লঞ্চকে যে নৌপরিবহন কর্মকর্তা ফিটনেস পরীক্ষা ছাড়াই চলাচলের অনুমোদন দিয়েছেন, তাকে আগে গ্রেপ্তার করা উচিত ছিল। আদেশের পর লঞ্চ দুর্ঘটনা রোধে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে সরকারের সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করেন আদালত। রিটে নৌপরিবহন সচিব, বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান ও লঞ্চের মালিক হামজালাল শেখকে বিবাদী করা হয়েছে।

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে মৃতদের ৫০ লাখ এবং গুরুতর আহতদের ২০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণের নির্দেশনা চেয়ে রোববার হাইকোর্টে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. ইউনুছ আলী আকন্দ। ওই রিটে অগ্নিকাণ্ডের প্রকৃত ঘটনা উদ্ঘাটনে বিচার বিভাগীয় তদন্ত চাওয়া হয়। অন্যদিকে, সোমবার সুপ্রিম কোর্টের অপর আইনজীবী সৌমিত্র সরদার আরেকটি রিট করেন। সে রিটে লঞ্চ, জাহাজসহ দেশের সব মোটর নৌযানের বিষয়ে যাবতীয় তথ্য চাওয়া হয়। সেই সঙ্গে অভিযান-১০ লঞ্চে আগুন প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিতে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না, সে বিষয়ে রুল জারির নির্দেশনা চাওয়া হয়।গত বৃহস্পতিবার রাতে সুগন্ধা নদীতে অভিযান-১০ লঞ্চটিতে ভয়াবহ আগুন লাগে। এতে এখন পর্যন্ত ৪২ জনের প্রাণহানি হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো বার্তা দেখুন
©২০১৫ ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized By BreakingNews